Breaking

Saturday, December 1, 2018

নিজের সেরাটা দেওয়ার ব্যাপারে আমি আত্মবিশ্বাসী বললেন পিভি সিন্ধু


সদ্য শেষ হওয়া সৈয়দ মোদি ইন্টারন্যাশানাল ব্যাডমিন্টন প্রতিযোগিতায় অংশ নেননি পিভি সিন্ধু। অলিম্পিকে রুপোজয়ী সিন্ধু এর কাণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে জানিয়েছেন, সামনেই বিডব্লিউএফ ওয়ার্ল্ডা ট্যুর ফাইনাল। এই প্রতিযোগতা প্রস্তুতি নেওয়ার জন্যই সৈয়দ মোদি প্রতিযোগিতায় তিনি নামেননি। প্রসঙ্গত, বিডব্লিউএফ ওয়ার্ল্ড ট্যুর ফাইনাল শুরু হচ্ছে ডিসেম্বরের ১২ থেকে।

    আকানে ইমাগুচির কাছে হেরে দুবাইয়ে অনুষ্ঠেয় গতবার এই প্রতিযোগিতায় রানার্স হয়েছিলেন সিন্ধু। এবারে অবশ্য প্রতিযোগিতা হবে চিনের গুয়াংঝুতে। এই নিয়ে তৃতীয়বার ‘প্রেসটিজিয়াস’ ইভেন্টে যোগ্যতা অর্জন করলেন ভারতীয় তারকা। সিন্ধুকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, এবারে কি আরও ভালো ফর্মে পাওয়া যাবে তাঁকে? জবাবে বিশ্বের ছয় নম্বর তারকার সাফ বলেছেন, ‘অবশ্যই। এবারে প্রস্তুতি নেওয়ার জন্য হাতে অনেক সময় পাওয়া গিয়েছে। আশা করছি এই প্রতিযোতিায় ভালো ফল করতে পারব। আমি আত্মবিশ্বাসী নিজের সেরাটা খেলোয়াড়রা এই প্রতিযোগিতায় খেলবে। তাদের সবার লক্ষ্য থাকবে জেতা। খুব কঠিন একটা প্রতিযোগিতায় নামতে চলেছি।’

    সিন্ধু গত কয়েক বছর ধরেই ভালো ছন্দে আছেন। চলতি বছরেও ছন্দ ধরে রেখেছেন তিনি। এই তিনটি মেজর প্রতিযোতা-কমনওয়েলথ গেমস, এশিয়ান গেমস এবং বিশ্ব চ্যাম্পিয়ানশিপে রুপো জিতেছেন। এছাড়া ইন্ডিয়া ওপেন এবং থাইল্যান্ড ওপেনে রানার্স হয়েছেন। হায়দরাবাদী মেয়ের মতে, ‘ফাইনালে উঠে হেরে যাওয়াটা সবচেয়ে বেশি কষ্টের। আমি পাঁচটি ফােইনাল খেলেছি এবং হেরে গিয়েছি। এগুলো মেনে নেওয়া চাপের। কিন্তু এশিয়ান গেমসের ফলাফলে আমি খুশি।’


    তিনি আরও যোগ করেন ‘অনেকসময় এমন হয় যে, আপনি ফাইনালে হেরে হতাশ পড়েন, অনেকসময় কোয়ার্টার ফাইনাল বা সেমিফাইনালে হেরে। আবার আপনি যখন মনে করে এর চেয়ে অনেক ভালো খেলতে পারেন কিংবা ১০০ শতাংশ দেওয়ার পরও হেরে যান, তাহলে আরও হতাশা বেড়ে যায়। অনেক সময় সেরা পারফরম্যান্স মেলে না ধরেও আপনি ম্যাচ জিতে যান। অনেক সময় এমন হয়, দিনটি আপনার নয়। ঠিক এইরকম হয়েছিল ২০১৭-র বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে। আমি ওই ম্যাচে সবকিছু করেছিলাম। কিন্তু ম্যাচ জিততে পারিনি। কারণ দিনটি আমার ছিল না।’

    গতবার ইমাগুচির কাছে হেরেছিলে। এবারে কাকে সবচেয়ে শক্ত প্রতিপক্ষ হিসেবে ধরছেন? সিন্ধু উত্তরে বলেন, ‘আমি মনে করি সবাই সমমানের খেলোয়াড়। প্রচুর জুনিয়র খেলোয়াড় উঠে আসছে। ওদের খেলার আদল আলাদা। তাই ওদের বিরুদ্ধে একটু অসুবিধা হয়।’ 

    সম্প্রতি দেখা গিয়েছে, বিশ্বের একনম্বর তাই জু ইংয়ের মুখোমুখি হলেই হারছেন সিন্ধু। এই প্রসঙ্গে ভারতীয় তারকার মন্তব্য, ‘তাই জু অন্যান্যদের থেকে একটু হলেও আলাদা। যে কারণে ও বিশ্বের একনম্বর। কিন্তু ওঁকে হারানো সম্ভব। ওর মটের মোকাবিলা করতে গেলে আলাদ করে প্রস্তুতি নিতে হবে।’

No comments:

Post a Comment